অচিরেই নতুন নাটক “ ধর্ম ব্যাবসায়ী হাসিনা”

ব্রিটিশ পার্লামেন্টে শেখ হাসিনা সরকারকে নিয়ে নিন্দার ঝড় (ভিডিও দেখুন
ব্রিটিশ পার্লামেন্টে শেখ হাসিনা সরকারকে নিয়ে নিন্দার ঝড়
ব্রিটিশ পার্লামেন্টে শেখ হাসিনা সরকারকে নিয়ে নিন্দার ঝড়ব্রিটিশ পার্লামেন্ট থেকে শেখ হাসিনার প্রতি যদি নির্দলীয় সরকারের অধিনে নির্বাচন না দেন,

অন্যায় ভাবে মানুষ খুন বন্ধ নাকরেন।তাহলে পরবর্তী যে কোন পরিস্তিতির জন্য তিনই দায়ী দেখুন সম্পূর্ণ ভিডিওটি এবং বেশি করে শেয়ার করুন জাতে দেশের সকল মানুষ দেখতে পায়।ব্রিটিশ পার্লামেন্টে শেখ হাসিনা সরকারকে নিয়ে নিন্দার ঝড়ব্রিটিশ পার্লামেন্ট থেকে শেখ হাসিনার প্রতি যদি নির্দলীয় সরকারের অধিনে নির্বাচন না দেন, অন্যায় ভাবে মানুষ খুন বন্ধ নাকরেন।
তাহলে পরবর্তী যে কোন পরিস্তিতির জন্য তিনই দায়ী দেখুন সম্পূর্ণ ভিডিওটি এবং বেশি করে শেয়ার করুন জাতে দেশের সকল মানুষ দেখতে পায়অচিরেই নতুন নাটক “ ধর্ম ব্যাবসায়ী হাসিনা””
ভারতের সেবাদাসী ব্যাংক ডাকাতের সর্দারনী জঙ্গীরানী বহুরূপী হাসিনা আবারও “যেমন খুশি তেমন সাঁঝো” প্রতিযোগিতার জন্য মাথায় পট্টি, বুকে কোরআন ও হাতে তাসবিহ নিয়ে জনগনকে আবারও কদমবুচি করার প্রস্তুতি নিচ্ছে। সেই সাথে ১৯৯৬ সালের মত শ্লোগান থাকবে, “লা ইলাহা ইল্লাল্লাহ, নৌকার মালিক তুই আল্লাহ”। স্বৈরশাসক এরশাদ ও জামাতের পায়ে ধরে ক্ষমতায় যাওয়া হাসিনা কি করে আশা করে দেশের ধর্মপ্রান মানুষ হাসিনার মত ভোট ডাকাত, ব্যাংক ডাকাত জঙ্গীবাদের সর্দারনী খুনিকে ভোট দেবে।
বাংলাদেশের রাজনৈতিক ইতিহাসের সবচাইতে নিকৃষ্ট ঘৃনিত একটি নাম শেখ হাসিনা। এই নামটির অর্থ ‘সুন্দর’ কিন্ত হাসিনা নামটি এখন একটি ঘৃনিত গালি হয়ে গেছে দেশের জনগনের কাছে।
ভারতের ঔরসে বিশ্বাসঘাতক মইনউদ্দিনের গর্ভজাত হাসিনার সরকার দেশের আলেম সমাজকে চরমভাবে অবমাননা করেছে। ধর্মপ্রান মুসলমানদের ধর্ষক, খুনি হিসেবে উপস্থাপন করেছে হাসিনা ও তার মুসলমান নামধারী কুলাঙ্গার সমর্থকেরা। পাঠ্যপুস্তক থেকে মুসলমানের সকল ইতিহাস ও ঘটনা সমুহ হিন্দুদের চক্রান্তে উঠিয়ে দিয়ে সব বস্তাপচা হিন্দুয়ানী কৌশলে ঢুকিয়েছে।
২০১৩ সালের ৫ই মে মতিঝিলের শাপলা চত্তরে ঘুমন্ত অবস্হায় মাদ্রাসার নিরিহ এতিম শিশুসহ কয়েকহাজার আলেমদের ব্রাশ ফায়ার করে মেরেছে। জঙ্গীবাদের প্রলেপ লাগিয়ে শতশত মাদ্রাসা বন্ধ করে দিয়েছে। সেই রক্তের ঋণ খুনি হাসিনা কি দিয়ে শোধ করবে। অবশ্যই রক্তের বদলা রক্ত দিয়ে নিতে হবে। এর মুল্য হাসিনা এ তার কুলাঙ্গার সমর্থকদের দিতেই হবে।
>১৯৯৬ সালে ক্ষমতায় আসার পর কুকুরের মাথায় টুপি দিয়ে করা পোস্টারের কথা জাতি ভুলেনি এবং এই জাতি কখনই ক্ষমা করবে না। নিশ্চিত খোদার গজব পড়বে এই দলটির উপর। এরা নি:শ্চিন্ন হবে অতি সত্তর এই বাংলাদেশের মাটি থেকে
জঙ্গীরানী খুনি হাসিনা বিনাভোটে সাংসদ হওয়া সংসদের আবালগুলোকে ৭ হাজার ৮শত ৮৫ কোটি টাকা দিচ্ছে নিজ এলাকাগুলোতে ১৮শত মসজিদকে ৬ তলায় উন্নীত করার জন্য এবং ১ হাজার ১০ টি মাদ্রাসা তৈরি করার জন্য। ২০১৪ সালের ৫ই জানুয়ারীর বিনা ভোটারের ভোট ডাকাতির নির্বাচনের সময় হাসিনা ৬ হাজার কোটি টাকা দিয়েছিলো সংসদের এই আবাল চোরগুলিকে।s
নির্বাচনের সময় এসে মসজিদ মাদ্রাসায় বিশেষ বরাদ্দ দিলেই পুরনো রক্তের ঋন শোধ হয়ে যাবে ? এত সোজা ? সেটা মনে করার কোন কারনই নেই। এটা ধর্ম নিরপেক্ষ আওয়ামী লীগের ধর্মব্যবসা আর ধর্ম নিয়ে রাজনীতির নোংরা বহি:প্রকাশ।

জনগন সময়মতোই তা প্রত্যাখান করবে ইনশা আল্লাহ। আর হেফাজতের মত নপুংসক গুটি কয়েকের কারনে ভোটে কোনো প্রভাবই পড়বে না। এদেশের ধর্মপ্রান মুসলমানেরা কখনও হিন্দুর পা চাটা গোলাম আওয়ামীদের ভোট দেয় না। তাইতো কুপথেই ক্ষমতা কুক্ষিগত করা ছাড়া দ্বিতীয় আর কোনোও বিকল্প পথ খোলা নেই আওয়ামীদের। তাইতো ব্যালট যুদ্ধে যাদের ভয় করে তাদের জেলে পুরে রাখে নয়ত গুম বা হত্যা।

Facebook Comments