একজন বোন আল্লামা সাঈদীকে প্রশ্ন করেঃওয়াজ মাহফিলে ওয়াজ নসিহতের ভিতরে রাজনীতির কথা বলেন কেন?

আল্লামা সাঈদী সাহেবের উত্তরঃভাল কথাই বলছেন।
বিষয়টা হচ্ছে, আল্লাহ যদি রাজনীতির কথা না বলতেন, রাসূলে করীম (সাঃ) যদি রাজনীতি না করতেন, সাহাবায়ে কেরাম যদি রাজনীতি না করতেন তাহলে আমি সাঈদী রাজনীতির কথাই বলতাম না। যেহেতু আল্লাহ পাক কুরআনুল কারীমের মধ্যে রাজনীতির কথা বলেছেন, রাজনৈতিক বক্তব্যকুরআনে আছে তাহলে আমি কিভাবে রাজনীতির কথা না বলে পারব ?রাসুলে করীম (সাঃ) বলেছেন “যে ব্যক্তি হক কথা জেনেও বলে না সে হল বোবা শয়তান” কাজেই যারা কুরআন হাদিস জানার পরেও কুরআন হাদিসের রাজনীতি অর্থনীতি সম্পর্কে জনগণকে অবহিত করে না, রাসুল (সাঃ) এর হাদিসের আলোকে সে বোবা শয়তান।

আল্লাহ পাকের রাসুল (সাঃ) রাজনীতি করেছেন। উনি রাষ্ট্র প্রধান ছিলেন। কুরআন হাদিস ভাল করে পড়ুন তাহলে বুঝতে পারবেন রাজনীতি করা নফল নয় সুন্নাত নয় বরং ফরজ।

মুসলমানদের ইসলামী রাজনীতি করতে হবে যদি না করেন তাহলে সুদ বন্ধ হবে কেমন করে ? সুদ হারাম। খতমে খাজেগান পড়ে সুদ বন্ধ করা যাবে ? বুখারী শরীফ কুরআন শরীফ খতম/মুখস্ত করে ফুঁ দিয়ে সুদ বন্ধ করা যাবে ??

বাংলাদেশের সমস্ত আলেমরা পানি পড়ে ব্যাংকে ঢাললে সুদ বন্ধ হবে না। তাবলীগ জামায়াতের লক্ষ লক্ষ লোকেরা যদি টঙ্গিতে বসে কাঁদতে কাঁদতে বেহুঁশ হয়ে যায় তাতে সুদ বন্ধ হবে না। সুদ বন্ধ করতে হলে পার্লামেন্টে যেতে হবে।

পার্লামেন্টে আইন পাশ করতে হবে আর পার্লামেন্টে আপনি যেতে পারবেন না কিয়ামত পর্যন্ত পীরমুরিদি করে। পার্লামেন্টে যেতে পারবেন কখন ? বরং রাজনীতি করে যেতে হবে। আর রাজনীতি না করলে আপনি সুদ বন্ধ করতে পারবেন না।

এরপর দেশে বেশ্যাবৃত্তি চলতেছে জুয়া চলতেছে মদ চলতেছে ঘুষ চলতেছে যেনা চলতেছে। এগুলো কিভাবে আপনি বন্ধ করবেন ?
এদেশে তো হাজার হাজার বছরহতে ওয়াজ চলতেছে পীর মুরিদি চলতেছে, এতো ওয়াজ এতো পীর মুরিদি এতো তাবলীগ এতো জিকীর এরপরেও কি সুদ বন্ধ হয়েছে ? জিনা বন্ধ হয়েছে ? বেশ্যাবৃত্তি বন্ধ হয়েছে ? চুরি ডাকাতি বন্ধ হয়েছে ?

না হই নাই, তাহলে এগুলো কি দিয়ে বন্ধ করবেন ?বন্ধ করবেন সেইভাবে যে ভাবে রাসুল (সাঃ) করেছেন।রাসূল (সাঃ) মদিনায় গিয়েছেন
রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা করেছেন, কুরআনের আইন চালু করেছেন, রাজনৈতিক বিধান চালু করেছেন, সমাজনীতি দিয়েছেন, অর্থনীতি দিয়েছেন, পররাষ্ট্রনীতি দিয়েছেন ইসলাম পুর্ণাঙ্গরুপে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে।

আটোমেটিক্যলি চুরি ডাকাতি
জিনা ব্যভিচার বন্ধ হয়ে গিয়েছে। এখন আমাদের দেশের সমাজ ও রাষ্ট্রে কিভাবে ইসলামী আইন প্রতিষ্ঠিত হবে ?
একটু চিন্তা করুন! সুদের মধ্যে ৭০টি গোনাহ, তার মধ্যে সবচেয়ে ছোট গোনাহ হচ্ছে, নিজের গর্ভধারিনী মা’কে বিবাহ করার শামিল, আর বড় গোনাহটা হচ্ছে আল্লাহ এবং রাসূল (সাঃ) এর সাথে যুদ্ধ করার শামিল।সুদ মদ জিনা জুয়া চলেতেছে সমাজে আর আমরা শিক্ষা এবং নামাজের নাম করে মাদ্রাসা মসজিদে বসে আছি এগুলির কোনো প্রতিবাদ করিনা!

Facebook Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *