মিয়ানমারের উপর চাপ সৃষ্টিতে আস্তানা সম্মেলনে ঐকমত্য

ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের প্রেসিডেন্ট বলেছেন, রোহিঙ্গা মুসলমানদের বিরুদ্ধে জাতিগত শুদ্ধি অভিযান বন্ধে মিয়ানমার সরকারের ওপর চাপ সৃষ্টি করার ব্যাপারে ইসলামি সহযোগিতা সংস্থা বা ওআইসিভুক্ত দেশগুলোর রাষ্ট্রপ্রধানদের মধ্যে ঐক্যমত্য সৃষ্টি হয়েছে।

কাজাখস্তানের রাজধানী আস্তানায় ওআইসি’র বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক শীর্ষ সম্মেলনে অংশগ্রহণ শেষে তেহরানে ফিরে প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি এ বক্তব্য দিয়েছেন। আস্তানা সম্মেলনে মিয়ানমার পরিস্থিতি নিয়ে আলাদাভাবে একটি বিশেষ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

প্রেসিডেন্ট রুহানি বলেন, ওই বৈঠকে রোহিঙ্গা মুসলমানদের ওপর গণহত্যা বন্ধের উপায় নিয়ে আলোচনা হয়েছে। পাশাপাশি তিনি ব্যক্তিগতভাবে কাজাখস্তান, তুরস্ক ও আজারবাইজানসহ আরো কয়েকটি দেশের  প্রেসিডেন্টদের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় বৈঠকে বিষয়টি নিয়ে কথা বলেছেন। ইরানের প্রেসিডেন্ট বলেন, আস্তানা সম্মেলনে সবগুলো মুসলিম দেশের রাষ্ট্রপ্রধানরা নির্যাতিত রোহিঙ্গা মুসলমানদের জন্য মানবিক ত্রাণ পাঠাতে সম্মত হয়েছেন।

আস্তানা সম্মেলন থেকে ফিরে ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মাদ জাওয়াদ জারিফ বলেছেন, মিয়ানমার সরকার রোহিঙ্গা মুসলমানদের বিরুদ্ধে জাতিগত শুদ্ধি অভিযান চালিয়ে যাবে আর বিশ্ববাসী তা চেয়ে চেয়ে দেখবে তা হতে পারে না। এদিকে ইরানের উপ পররাষ্ট্রমন্ত্রী ইব্রাহিম রাহিমপুর জানিয়েছেন, রোহিঙ্গা মুসলমানদের কাছে পাঠানোর জন্য ইরানের মানবিক ত্রাণের বহর প্রস্তুত রয়েছে।

Facebook Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *